সাজেক ভ্যালি এবং খাগড়াছড়ি ভ্রমন

icon মার্চ ২০, ২০২০

icon ইভেন্ট ফিঃ ৪৯৯৯ টাকা

icon ইভেন্টে কনফার্ম করেছেন ৪ জন

marker

ট্যুর লোকেশন

সাজেক ভ্যালি রাঙ্গামাটি জেলার সর্ব উত্তরের মিজোরাম সীমান্তে অবস্থিত। সাজেক হলো বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ইউনিয়ন । যার আয়তন ৭০২ বর্গমাইল । সাজেকের উত্তরে ভারতের ত্রিপুরা , দক্ষিনে রাঙামাটির লংগদু , পূর্বে ভারতের মিজোরাম , পশ্চিমে খাগড়াছড়ির দীঘিনালা। সাজেক রাঙামাটি জেলায় অবস্থিত হলেও এর যাতায়াত সুবিধা খাগড়াছড়ি থেকে। আমরা ২দিন ১রাতের এই ট্যুরে ১ রাত থাকবো সাজেকে এবং সেদিন সাজেকের রুইলুই পাড়া ও কংলাক পাড়া ঘুরবো। পরেরদিন আমরা খাগড়াছড়ি ব্যাক করে খাগড়াছড়িতে অবস্থিত ঝুলন্ত ব্রিজ, রিসাং ঝর্ণা, আলুটিলা ঘুরে দেখবো।

বিশেষ আকর্ষণ

  • – রিসাং ঝর্ণায় ঝাপাঝাপি স্লাইডিং
    – হাজাছড়া ঝর্ণায় গোসল
    – মেঘের রাজ্যে হারিয়ে যাওয়া
    – কংলাক পাহাড় মিনি ট্রেকিং
    – হ্যালিপ্যাডে সানসেট উপভোগ
    – সাজেকে পাহাড়ি রান্নাবান্না
    – খাগড়াছড়িতে ১ বেলা আদিবাসি খাবার

15538768201200px-Sajek_Valley_2
1553876821sajek-jajabor
1553876820Sajek valley
1553876820megh-punji
How to go Sajek Valley
1553876820hajachora-falls
clock

সময় সূচি

  • সকাল ৭ঃ০০ - নাস্তা পরোটা, সব্জি, ডিম, চা

    খাগড়াছড়ি পৌছে ফ্রেশ হয়ে নাস্তা সেরে নিবো। তারপর চান্দের গাড়িতে করে ১০ টার আর্মি এস্কর্ট ধরবো খাগড়াছড়ি শহর থেকে।

  • সকাল ১০ঃ০০ - হাজাছড়া ঝর্ণা - হাজাছড়া ঝর্ণা ঘুরে যাবো পথিমধ্যে

    সকাল বেলা হাতে সময় থাকলে আমরা হাজাছড়া ঝর্ণা দেখে যাবো। যদি এস্কর্টের কারনে সময় না পাওয়া যায় তাহলে পরদিন ফেরার সময় আমরা হাজাছড়া ঝর্ণা দেখে খাগড়াছড়ি যাবো। প্রথম দিন ঘুরে যাওয়া চেষ্টা থাকবে।

  • দুপুর ১ঃ০০ - সাজেক চেক-ইন দুপুরে সাজেক পৌছে রিসোর্টে চেকইন

    সাজেক পৌছাতে পৌছাতে প্রায় দুপুর সাড়ে বারোটা থেকে একটা বেজে যাবে। সাজেক পৌছে চেক ইন করে গোসল সেরে প্রথমেই লাঞ্চ সেরে নিবো পাহাড়ি মুরগী ও স্থানীয় সব্জি, নাগা ঝাল দিয়ে। তারপর যার যার মতো চাইলে রেস্ট নিতে পারেন বা, আশেপাশে ঘুরে দেখতে পারেন।

  • রাত ৮ঃ০০ - বার বি কিউ বিকেলে হ্যালিপ্যাড ঘুরে, সন্ধ্যার পর বার বি কিউ

    বিকেল ৪ টার পর পর সবাই একসাথে চান্দের গাড়িতে করে হ্যালিপ্যাডে ঘুরতে যাবো। পাহাড়ে সন্ধ্যা খুবই মনোরম ও খুবই ভালো লাগে সব সময়। সূর্যাস্ত উপভোগ করে ব্যক্তিগত ও গ্রুপ ছবি তুলে সন্ধ্যার পর আমরা বার বি কিউ করবো। খাওয়া দাওয়া সেরে রাতে উনোর আড্ডা বা, খোজ গল্প করে ঘুমাতে চলে যাবো যার যার মতো।

  • সকাল ৬ঃ০০ - কংলাক ট্রেকিং - রুইলুই পাড়া থেকে ভোরে কংলাক যাত্রা

    রাতে রুইলুই পাড়ায় আমাদের কটেজে রাত্রিযাপন করে খুব সকালে আমরা বের হয়ে যাবো কংলাক পাড়ার উদ্দেশ্যে। এখান থেকে দারুন ৩৬০ ডিগ্রী ভিউ দেখা যায় বাংলাদেশের এবং মায়ানমারের পাহাড়ের।

  • সকাল ৮ঃ৩০ - নাস্তা - খিচুড়ি, ডিম, সব্জি

    কংলাক থেকে সাড়ে আটটার মধ্যে ব্যাক করে আমরা নাস্তা করে নিবো।

  • সকাল ৯ঃ৩০ - চান্দের গাড়ি - খাগড়াছড়ির পথে রওনা

    সকাল সাড়ে ৯টার মধ্যে সবাই ব্যাগ গুছিয়ে চান্দের গাড়িতে উঠে পরবো। তারপর আর্মি এস্কর্টের সাথে দুপুরের মধ্যে খাগড়াছড়ি ব্যাক করবো। এইদিন আমরা খাগড়াছড়িতে আরো ৩টি স্পট দেখবো।

যা যা অন্তর্ভুক্ত

    – বাসে যাওয়া আসা
    – সকল লোকাল ট্রান্সপোর্টেশন
    – নাস্তা, দুপুরের খাবার, রাতের খাবার
    – কটেজের / রিসোর্টের খরচ (২ বা, ৪ জনের শেয়ার রুম)
    – ৩-৪ জায়গায় প্রবেশটিকেট।
    – গাইডের খরচ।
    – চান্দের গাড়ি ২ দিন রিজার্ভ
    – ড্রাইভার / হেল্পার এর খরচ

যা যা অন্তর্ভুক্ত নয়

    – যাত্রাপথের বিরতিতে খাবার (যাওয়া এবং আসার দিন)
    – যেকোন ব্যক্তিগত খরচ।
    – ইভেন্টে লেখা নেই এমন কোন খরচ।

marker

ম্যাপ পরিকল্পনা

restaurant

খাদ্য রসিকের খাবার

    ১ম দিন নাস্তা # পরোটা, সব্জি, ডিম
    ১ম দিন লাঞ্চ # জুমের ভাত, দেশি মুরগির তরকারি, একটি শাক/ সব্জি, ভর্তা, ডাল
    ১ম দিন ডিনার # বার বি কিউ করা হবে
    ২য় দিন নাস্তা # খিচুড়ি, ডিমভূনা
    ২য় দিন লাঞ্চ # সাদা ভাত,হাঁসের মাংস, সব্জি, ডাল
    ২য় দিন ডিনার # সাদা ভাত, ব্যাম্বু চিকেন, লাউ চিংড়ি, লইট্টা ফ্রাই, মাশরুম সব্জি, শুটকি, ডাল

camera

পূর্ববর্তী ট্যুরের ছবি

1553877204sajek-tour
1553877204sajek-jajaborxpress-3
1553877204sajek-jajaborxpress-2
1553877204sajek-jajaborxpress-1
1553877204sajek-jajabor
1553877204Sajek valley
1553877204khang-moy-food
1553877204hajachora-falls
icon

বিশেষ নির্দেশনা

✔ আপনার অবশ্যই ভ্রমণ পিপাসু একটি মন থাকতে হবে। যেকোন সমস্যা হলে সেটি সবার সাথে মানিয়ে নিতে হবে।

✔ যেখানে যাবো স্থানীয়দের সাথে ভালো ব্যবহার করতে হবে। অশালীন কিছ করা যাবে না। ভ্রমন স্থানে ময়লা ফেলা যাবে না। মোট কথা, উশৃংখলতার কোন পরিচয় দেয়া যাবে না। নারী / মহিলা এবং শিশুদের সবদিক থেকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেয়ার মানসিকতা রাখতে হবে।

✔ গ্রুপ ছবি তোলার ক্ষেত্রে আপনার কোন আপত্তি থাকলে অবশ্যই আগে জানাতে হবে। আমরা প্রাইভেসির ব্যাপারে সচেতন তাই কারো আপত্তি থাকলে তার কোন ছবি তোলা হবে না। না জানালে তার দায়ভার ছুটি ট্রাভেল গ্রুপ বহন করবে না।

✔ ট্যুরে যেকোন প্রকার দুঘর্টনা, দুর্যোগ, রাস্তায় জ্যাম, হরতাল এসব কারণে কোন সমস্যা হলে সবাইকে মানিয়ে নেওয়ার মানসিকতা রাখতে হবে। এসব কোন কিছুই আমাদের হাতে নয়। এগুলো জাতীয় সমস্যা বা, দুর্যোগ। তাই এইসময়ে সবার সহযোগিতা মূলক মনোভাব কাম্য এবং অতিরিক্ত দিন/ রাত স্টে করার প্রয়োজন হলে সবাই মিলে সমান ভাবে ব্যয় বহন করতে হবে।

✔ কোন প্রকার মাদক এলাউ না। কারো কাছে এরকম কোন কমপ্লেইন পাওয়া গেলে সাথে সাথে তাকে ট্যুরে ডিস-এলাউ করা হবে। সেক্ষেত্রে ইভেন্ট ফি ফেরত হবে না এবং ছুটি এব্যাপারে কোন ছাড় দিবে না।

কোন প্রকার প্রশ্ন থাকলে ইনবক্সে যোগাযোগ করতে পারেন অথবা, কল করতে পারেন 01710871091 (সকাল ১০ থেকে রাত ১০টা)