রাঙ্গামাটি ও কাপ্তাই লেকে শীতকালীন ভ্রমণ

icon জুলাই ২৪, ২০২০

icon ইভেন্ট ফিঃ ৪৯৯৯ টাকা

icon ইভেন্টে কনফার্ম করেছেন ২০ জন

marker

ট্যুর লোকেশন

নৈসর্গিক সৌন্দর্যের এক অপার লীলাভূমি রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা। এখানে পাহাড়ের কোল ঘেঁসে ঘুমিয়ে থাকে শান্ত জলের হ্রদ। সীমানার ওপাড়ে নীল আকাশ মিতালী করে হ্রদের সাথে, চুমু খায় পাহাড়ের বুকে। এখানে চলে পাহাড় নদী আর হ্রদের এক অপূর্ব মিলনমেলা। চারিপাশ যেন পটুয়ার পটে আঁকা কোন জল রঙের ছবি। কোন উপমাই যথেষ্ট নয় যতটা হলে বোঝানোয় যায় রাঙ্গামাটির অপরূপ সৌন্দর্য। এখানকার প্রতিটি পরতে পরতে লুকিয়ে আছে অদেখা এক ভূবন যেখান আপনার জন্য অপেক্ষা করছে নয়ানাভিরাম দৃশ্যপট। ঝর্ণা, পাহাড় আর গুহার রাণী বলা যায় এই বান্দরবানকে। প্রকৃতি অকৃপণ হাতে ঢেলে সাজিয়েছে এই রাঙ্গামাটিকে। আমরা ডিসেম্বর ২৬ তারিখ রাতের বাসে রওনা দিবো। ২৭ তারিখ শুক্রবার ও ২৮ তারিখ শনিবার রাঙ্গামাটি ও কাপ্তাই ঘুরে রবিবার সকালে ঢাকা ফিরবো ইনশাল্লাহ।

বিশেষ আকর্ষণ

  • – রাঙ্গামাটি ৭টি জনপ্রিয় স্পটে ভ্রমণ
    – কাপ্তাই লেকে সারাদিন নৌভ্রমণ
    – পেদাটিংটিং ভ্রমণ, শুভলং ঝর্ণা ভ্রমণ
    – বেড়াইন্যা রিসোর্টে ডে ট্যুর
    – টুকটুক ইকো ভিলেজ
    – জাদুঘর, ডিসি বাংলো ভ্রমণ
    – কাপ্তাই লেকে কায়াকিং

15746026017050810257_9c65fc0e04_o
157460260214927898272_acd9a634cf_b
157460260214833441129_9c8c42b389_k
157460260174807461_879513209110584_2125464256911507456_o
157460260169203269_2349154615351049_8846294193396514816_n
157460260155786313_711823245879582_3130824497842618368_n
clock

সময় সূচি

  • সকাল ৭ঃ০০ - নাস্তা পরোটা, সব্জি, ডাল, ডিম

    সকালে বাস থেকে নেমে নাস্তা করে আমরা হোটেলে চেকইন করবো। বা, হোটেলেই নাস্তা সেরে ফেলবো।

  • সকাল ১০:০০ - সাইটসিয়িং প্রথমদিন আমরা রাঙ্গামাটির ৭টি দর্শনীয় স্থান ভ্রমণ করবো

    সকালে নাস্তা সেরে আমরা নৌকা নিয়ে বের হয়ে পরবো রাঙ্গামাটির দর্শনীয় স্থান গুলো দেখতে। আজকে সারাদিন আমরা নৌকা দিয়ে ঘুরে ঘুরে সবগুলো স্পট দেখবো। রাজবাড়ি, ডিসিবাংলো, পেদাটিংটিং, টুকটুক ইকো ভিলেজ, চাংপাং, শুভলঙ ঝর্না ইত্যাদি আর স্পট।

  • দুপুর ২:০০ - লাঞ্চ ও বিকেলে সূর্যাস্ত উপভোগ পেদাটিংটিং বা, এধরনের দ্বীপ রেস্টুরেন্টে লাঞ্চ

    ঘুরতে ঘুরতেই দুপুরে আমরা লাঞ্চ সেরে নিব। লাঞ্চ আগেই অর্ডার দেয়া থাকবে যাতে সবকিছু রেডি থাকে। ২দিন ই আমরা চেষ্টা করবো ট্রেডিশনাল খাবারের আয়োজন করতে। লাঞ্চ সেরে নৌকা নিয়ে বিকেল ও সূর্যাস্ত দেখে আমরা হোটেলে ফেরত যাবো। রাতে হোটেলে খেয়ে নিবো।

  • সকাল ৯ঃ০০ - নাস্তা ও হোটেল থেকে চেকআউট আজকের নাস্তায় থাকবে ভুনা খিচুড়ি

    সকালে নাস্তা সেরে আস্তে ধীরে ব্যাগ গুছিয়ে আমরা বেড়িয়ে পরবো। আজকে সারাদিন আমরা কাটাবো বেড়াইন্যা রিসোর্টে। মূলত এটি একটি রেস্টুরেন্ট তবে দারুণ এই জায়গায় যাবো বাংলাদেশের অন্যতম সুন্দর একটি রাস্তা দিয়ে (আসাম বস্তী রোড)।

  • সকাল ১১:০০ - কায়াকিং ও ঘুরাঘুরি বেড়াইন্যা লেকশোর ক্যাফে

    বেড়াইন্যা পৌছে আমরা সবাই কায়াকিং করবো। প্রতি কায়াকে ২জন করে ১ঘন্টার ফ্রি রাইড পাবেন এখানে। অতিরিক্ত করতে চাইলে অবশ্যই পে করে ঘুরতে পারবেন। একেএক সবাই ঘুরাঘুরি করে লাঞ্চের প্রস্তুতি নিবো।

  • দুপুর ২:০০ - ট্রেডিশনাল লাঞ্চ ও ফিরতি পথে রওনা ব্যাম্বো চিকেন, শুটকি, মাছ ভর্তা ও নানাপদের উপজাতি খাবার

    কায়াকিং শেষ করে সময়মতো লাঞ্চ করে নিবো আমরা। তারপর একটু রেস্ট নিয়ে রাঙ্গামাটির উদেশ্যে রওনা দিবো। বিকেলে হালকা নাস্তা করে সন্ধ্যার বাসে ঢাকার উদেশ্যে রওনা দিবো।

যা যা অন্তর্ভুক্ত

    – ননএসি শ্যামলি/হানিফ বাসে যাওয়া আসা
    – সকল লোকাল ট্রান্সপোর্টেশন
    – ২ দিনের নাস্তা, ২ দিনের দুপুরের খাবার, ১দিন রাতের খাবার
    – হোটেল / রিসোর্টের খরচ (২ বা, ৪ জনের শেয়ার রুম)
    – ৩-৪ জায়গায় প্রবেশটিকেট।
    – গাইডের খরচ।
    – ড্রাইভার / হেল্পার এর খরচ।

যা যা অন্তর্ভুক্ত নয়

    – যাত্রাপথের বিরতিতে খাবার (যাওয়া এবং আসার দিন)
    – যেকোন ব্যক্তিগত খরচ।
    – ইভেন্টে লেখা নেই এমন কোন খরচ।

marker

ম্যাপ পরিকল্পনা

restaurant

খাদ্য রসিকের খাবার

    ১ম দিন নাস্তা # পরোটা, সব্জি, ডিম
    ১ম দিন লাঞ্চ # ট্রেডিশনাল খাবার পেদাটিংটিং-এ
    ১ম দিন ডিনার # ভাত, গরু / মুরগী বা, বিরিয়ানি (পছন্দমত / প্রাপ্যতা অনুযায়ী)
    ২য় দিন নাস্তা # খিচুড়ি, ডিমভূনা
    ২য় দিন লাঞ্চ # ট্রেডিশনাল খাবার বেড়াইন্যা রিসোর্টে
    ২য় দিন বিকেলে # বিকেলে নাস্তা ভাজাপোড়া।

camera

পূর্ববর্তী ট্যুরের ছবি

157460325947078586_647794078949166_6106828562969395200_o
157460325944969681_631590967236144_8441075578185973760_o
157460325939023253_2109031422696704_8339480433196531712_n
157460325927459842_1978366122429902_6086554443169826586_n
157460325926219959_1971712863095228_2871405206369636985_n
157460325923509405_438544589874117_7298514144556523118_o
157460325923380417_438542993207610_7656703584260565695_n
157460325921427195_415178302210746_8183212160865135001_o
icon

বিশেষ নির্দেশনা

✔ আপনার অবশ্যই ভ্রমণ পিপাসু একটি মন থাকতে হবে। যেকোন সমস্যা হলে সেটি সবার সাথে মানিয়ে নিতে হবে।

✔ যেখানে যাবো স্থানীয়দের সাথে ভালো ব্যবহার করতে হবে। অশালীন কিছ করা যাবে না। ভ্রমন স্থানে ময়লা ফেলা যাবে না। মোট কথা, উশৃংখলতার কোন পরিচয় দেয়া যাবে না। নারী / মহিলা এবং শিশুদের সবদিক থেকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেয়ার মানসিকতা রাখতে হবে।

✔ ট্যুরে যেকোন প্রকার দুঘর্টনা, দুর্যোগ, রাস্তায় জ্যাম, হরতাল এসব কারণে কোন সমস্যা হলে সবাইকে মানিয়ে নেওয়ার মানসিকতা রাখতে হবে। এসব কোন কিছুই আমাদের হাতে নয়। এগুলো জাতীয় সমস্যা বা, দুর্যোগ। তাই এইসময়ে সবার সহযোগিতা মূলক মনোভাব কাম্য এবং অতিরিক্ত দিন/ রাত স্টে করার প্রয়োজন হলে সবাই মিলে সমান ভাবে ব্যয় বহন করতে হবে।

✔ উপরের বিষয়গুলোতে আপত্তি না থাকলে ৫০% এডভান্স পেমেন্ট করে বুকিং সম্পন্ন করুন। এডভান্স অফেরতযোগ্য। বুকিং সিরিয়াল অনুযায়ী বাসের আসন বণ্টন করা হবে। এক্ষেত্রে আপত্তি গ্রহনযোগ্য নয়।

✔ গ্রুপ ছবি তোলার ক্ষেত্রে আপনার কোন আপত্তি থাকলে অবশ্যই আগে জানাতে হবে। আমরা প্রাইভেসির ব্যাপারে সচেতন তাই কারো আপত্তি থাকলে তার কোন ছবি তোলা হবে না। না জানালে তার দায়ভার ছুটি ট্রাভেল গ্রুপ বহন করবে না।

✔ কোন প্রকার মাদক এলাউ না। কারো কাছে এরকম কোন কমপ্লেইন পাওয়া গেলে সাথে সাথে তাকে ট্যুরে ডিস-এলাউ করা হবে। সেক্ষেত্রে ইভেন্ট ফি ফেরত হবে না এবং ছুটি এব্যাপারে কোন ছাড় দিবে না।

কোন প্রকার প্রশ্ন থাকলে ইনবক্সে যোগাযোগ করতে পারেন অথবা, কল করতে পারেন 01710871091 (সকাল ১০ থেকে রাত ১০টা)